এপ্লিকেশন মানে যা মানুষকে কোন বিশেষ ধরনের কাজ সম্পাদনে সহায়তা করে। সাধারণ অ্যান্ড্রয়েড এপ্লিকেশন বা উইন্ডোজ এপ্লিকেশন বা সফটওয়্যার তো আমরা সবাই চিনি এবং প্রত্যেকদিন ব্যবহারও করি।যেমনঃ গান শোনার জন্য একটা এপ্লিকেশন, ভিডিও দেখার জন্য একটা এপ্লিকেশন, ওয়েব ব্রাউজ করার জন্য একটা এপ্লিকেশন, ট্যাক্সি ডাকার জন্য আলাদা এপ্লিকেশন, শপিং করার জন্য আলাদা এপ্লিকেশন ইত্যাদি। স্মার্টফোন এবং পিসিতে আমরা যেসব কাজ করি তার অনেক কাজের জন্যই বিভিন্ন ধরণের এপ্লিকেশন এবং প্রোগ্রাম ব্যবহার করে থাকি।

ওয়েব এপ্লিকেশন হচ্ছে সেই ধরণের এপ্লিকেশন যেগুলো ডাওনলোড ও ইনস্টল ছাড়াই ওয়েব সার্ভার থেকে ওয়েবে ব্রাউজারে চালানো যায়।এসব ওয়েব এপ্লিকেশন আপনার সাধারণ ফোনে ইনস্টল করা এপ্লিকেশনগুলোর মতোই সুযোগ-সুবিধা থাকবে যা আপনি ওয়েব সার্ভারে প্রবেশ করে ব্যাবহার করতে পারবেন। এই এপ্লিকেশনগুলো চলবে আপনার ব্রাউজার ইঞ্জিনের ওপরে। আপনার একটি একটিভ ইন্টারনেট কানেকশন থাকলেই আপনি এসব ওয়েব এপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারবেন। হ্যা, এসব এপ্লিকেশনগুলো যেহেতু সাধারণ ইনস্টল করা এপ্লিকেশন এর মতোই বিহেভ করবে, তাই এগুলোও আপনার ফোনের প্রোসেসিং পাওয়ারের ওপরেই রান করবে।

এই ওয়েব এপ্লিকেশনগুলো মূলত একটি ওয়েবসাইটই, যেটিকে শুধুমাত্র একটি এপ্লিকেশন এর বিহেভ করতে অপটিমাইজ করা হয়। যার ফলে ওয়েবসাইটগুলোর কয়েকটি বিষয়ে খেয়াল রাখা হয়। যেমন- ইউজার ইন্টারফেস, রেস্পন্সিভনেস, স্পিড, মোবাইল ফ্রেন্ডলি কিনা এবং আরো অনেক বিষয় খেয়াল রেখে একটি ওয়েবসাইটকে ওয়েব এপ্লিকেশন হিসেবে অপ্টিমাইজ করা হয়।

তাহলে এখানে ব্যাবহারিক লাভটা কি হচ্ছে? এখানে লাভটা এটাই হচ্ছে যে আপনাকে এই এপ্লিকেশনগুলো নতুন করে ডাউনলোড করতে হচ্ছেনা, ইনস্টল করতেও হচ্ছেনা। যার ফলে আপনার ইন্টরনেট ও সময় বেঁচে যাচ্ছে এবং আপনার ফোনের স্টোরেজও বেঁচে যাচ্ছে।এছাড়াও বেশিরভাগ এপ্লিকেশন ব্যাবহারকারীরাই নতুন অজানা এপ্লিকেশন ডাওনলোড ও ইনস্টল করে ইউজ করাটা বিরক্ত বোধ করেন। তাদের জন্য ওয়েব এপ্লিকেশন একদম উপযুক্ত কেননা তারা মোবাইল বা ডেস্কটপ এপ্লিকেশন ডাওনলোড ইনস্টল করে হয়তো আপনার এপ্লিকেশনটি দেখবেই না। সুতরাং নতুন কোন এপ্লিকেশন এর প্রয়োজন হলে ওয়েব এপ্লিকেশন দিয়ে শুরু করা উচিত যাতে ব্যবহারকারীরা সাচ্ছন্দে ব্যাবহার করে পরিচিত হতে পারে। পরিচিতির পর ওয়েব এপ্লিকেশন এর এপিআই ব্যাবহার করে কিন্তু খুব সহজেই মোবাইল বা ডেস্কটপ এপ্লিকেশনে ওয়েব সার্ভারের তথ্য আদান-প্রদান করা যায়। এছাড়াও প্রচলিত ডেস্কটপ এবং মোবাইল এপ্লিকেশন এর ওয়েব ভার্সন তৈরি করে নতুন ব্যাবহারকারী দ্রুত বাড়ানো যায়। আপনি নিজেই যাচাই করে দেখুন,ফেসবুক এর ওয়েবসাইট ব্যাবহার করে যখন ভালো লেগেছে তখনই না আপনি ফেসবুক এর ডেস্কটপ বা মোবাইল এপ্লিকেশন ইন্সটল করেছেন? আবার মোবাইল/ডেস্কটপ এপ্লিকেশন ইনস্টল করা থাকা সত্ত্বেও কিন্তু ওয়েব ব্রাইজারে ফেইসবুক ঠিকই ব্রাউজ করতে হয়। এক্ষেত্রে ওয়েব এপ্লিকেশন আরো গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে তার এপিআই দিয়ে তার ডাটাবেইজের ডাটা মোবাইল এবং ডেস্কটপ এপ্লিকেশনে পাঠিয়ে। দেখা গেল আপনি ফেইসবুকের ওয়েবসাইট ব্যাবহার করে একজনকে একটা মেসেজ পাঠালেন কিন্তু মোবাইল এপ্লিকেশনেও সাথে সাথে ওই মেসেজ দেখা যায়।তার মানে সবগুলোর জন্য ডাটাবেইজ কিন্তু একটি ই। ফেইসবুক এর ওয়েবসাইট এখানে মূখ্য ভূমিকা পালন করে তার এপিআই ইউজ করে ডেস্কটপ ও মোবাইল এপ্লিকেশনে তথ্য ব্যাবহার বা আদান-প্রদান করার জন্য।

ওয়েব এপ্লিকেশন কি তা বুঝতে হলে আপনি "গুগল ম্যাপ" এর দিকে খেয়াল করুন। গুগল ম্যাপ এর উদ্দেশ্য বা কাজ হলো আপনার অবস্থান ও গন্তব্য খুঁজে বের করে সহজভাবে আপনার গন্তব্যে পৌছানো তে সহযোগীতা করা। গুগল ম্যাপ এর মোবাইল এপ্লিকেশন, ডেস্কটপ এপ্লিকেশন, ওয়েবসাইট সব পয়েন্ট থেকেই কিন্তু গুগল ম্যাপ ওই উদ্দেশ্য সম্পাদন করতে পারেন। সবগুলো কিন্তু প্রায় একইরকভাবে একই সুযোগ সুবিধা দিয়ে সাজানো, ভিন্নতা হলো একই এপ্লিকেশন আপনার পছন্দ বা প্রয়োজন অনুযায়ি বিভিন্ন ডিভাইস থেকে ব্যাবহার করতে পারবেন।

আপনার ব্যাবসায় বা প্রতিষ্ঠানের ওয়েব এপ্লিকেশন সম্পর্কে পরিকল্পনা বা তৈরী করার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। ধন্যবাদ আপনার সময়ের জন্য।

SHARE